২০১৮ সালের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদেরকে অফিস চলাকালীন পরীক্ষার প্রবেশপত্র দেখিয়ে তাদের একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্ট ও প্রশংসাপত্র সংগ্রহ করার জন্য বিশেষভাবে নির্দেশ দেয়া যাচ্ছে।

গার্ল গাইড

আর্ত মানবতার কল্যাণ, সামাজিক কর্মকাণ্ড ও সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সেচ্ছাসেবকের কাজ করার লক্ষ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রীদের নিয়ে গঠিত হয় গার্ল গাইড। ১৯৮২ সালে ৮ আগস্ট বিএএফ শাহীন কলেজ ঢাকায় প্রতিষ্ঠিত হয় গার্ল গাইডের একটি ইউনিট। ১৯৮৪ সালে প্রথম সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে আমন্ত্রিত অতিথিদের অভ্যর্থনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল কলেজের গার্লস গাইড ইউনিট। বর্তমানে এর সদস্য সংখ্যা ৩২। প্রতিষ্ঠাকাল হতে বর্তমান পর্যন্ত অত্যান্ত নিভর্রযোগ্যতার সাথে এই কলেজের গার্ল গাইডের দায়িত্ব পালন করে আসছেন ক্রীড়া শিক্ষিকা বেগম ফেরদৌস রহমান।